Monday, 21 October, 2019 খ্রীষ্টাব্দ | ৬ কার্তিক ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |

কমলগঞ্জে মনিপুরী বাড়ীতে হামলা॥ আহত-৪

কাগজ রিপোর্টঃ
মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার মাধবপুর ইউনিয়নের বাঘবাড়ি গ্রামে এক মনিপুরী সম্প্রদায়ের বাড়ীঘর ভাংচুর, নগদ অর্থ,স্বর্ণালংকার লুটপাটসহ মারধর করে ৪ জনকে আহত করার অভিযোগ উঠেছে। ঈদের পরের দিন বৃহস্পতিবার (৬ জুন) দুপুরে এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। থানায় অভিযোগ দেয়া হয়েছে।

আহত গরুর মালিক অরুণ সিংহ তার পরিবারের লোকজন অভিযোগ করে বলেন, গত ২৩ মে সকালে গরুকে ঘাস খাওয়ানোর জন্য বাড়ীর পাশে শ্মশান মাঠে খুটি মেরে রেখে কিছু দূরে ধানি জমিতে কাজ করছিলাম, দুপুর দিকে দেখি দুটি লোক খুটি থেকে আমাদের গরু খুলে নিয়ে যাচ্ছে এসময় আমি এগিয়ে গেলে আমাদের পার্শ্ববর্তী ছয়ছিড়ি গ্রামের কুদ্দুস মিয়ার ছেলে সাবাজ মিয়া (২৩) ও চাচা ফারুক মিয়ার ছেলে সাজ্জাদ মিয়া (২৪) গরু নিয়ে লুকিয়ে পড়ে খোঁজা খুঁজির এক পর্যায়ে তাদের কে শ্মশানের একটি জংগলের মধ্যে গরুসহ ধরে ফেলি, কথা কাটাকাটির এসময় তাদের সহযোগী মধু (৩০) ধারালো একটি রাম দা নিয়ে আমার দিকে তেরে আসলে আমি প্রান বাঁচাতে দৌড়ে চলে এসে বাড়িতে জানালে চোররা গরু ছেড়ে দিয়ে পালিয়ে যায়।
পরে বিষয়টি স্হানীয় ইউপি সদস্যকে জানালে তিনি বিষয়টি দেখে দিবেন জানালে আমরা নীরব থাকি।
কিন্তু ১৩ দিন পর বৃহস্পতিবার দুপুরে গরু চোর সাবাজ ও সাজ্জাদের নেতৃত্বে একদল দুষ্কৃতকারী রাস্তায় একা পেয়ে গরুর মালিক অরুণ সিংহ (৫২) ও তার ভাই রাজকুমার সিংহ (৫৬)’র উপর অতর্কিত হামলা চালিয়ে তাদেরকে পিটিয়ে আহত করে। তাদের আত্নচিৎকারে আমরা বাড়ির লোকজন এগিয়ে গেলে, হামলাকারীরা পালিয়ে যায়, পরে তাদের উদ্ধার করে কমলগঞ্জ স্বাস্হ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়ার আধ ঘন্টার মধ্যেই আবারো চোররা তাদের দলবল নিয়ে সংঘবদ্ধ হয়ে আহত অরুণের বাড়ীতে হামলা চালিয়ে ঘরের জিনিষপত্র ভাংচুর করে মালামাল লুট করে । এসময় বাধা দিতে এগিয়ে আসলে অনিল কুমার সিংহ(৪৮) ও অরুনের স্ত্রী ফাজা দেবি সিংহ (৪৮) পিঠিয়ে আহত করা হয়।
আহত অরুণের স্ত্রী ফাজা দেবী বলেন, নতুন ঘরের রড ও সিমেন্ট ক্রয় করার জন্য ঘরের সকেচে রাখা নগদ ১ লক্ষ ২০ হাজার টাকা ও ১ ভরি ওজনের একটি স্বর্ণের মালা ও বালাসহ মালামাল লুটপাট করে নিয়েছে।
এ হামলায় মহিলাসহ আরও দুইজন আহত হয়েছেন। আহতরা হলেন, অরুন সিংহ (৫২), রাজকুমার সিংহ (৫৫), অনিল কুমার সিংহ(৪৮) ও ফাজা দেবি সিংহ (৪৮)। আহত উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় অরুণ কুমার বাদী হয়ে সাবাজ, মধু তার পিতা কুদ্দুস মিয়া, বুদুর মিয়া, হান্নান মিয়া , সাজ্জাদ ও তার পিতা ফারুক মিয়াসহ ৯ জনের নাম উল্লেখ করে আরো ৩৫ জনকে অজ্ঞাত আসামী করে থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন। এদিকে ঘটনার সাথে জড়িতরা বিষয়টি অস্বীকার করেছেন। তারা আমাদের মিথ্যা ফাঁসাতে চাচ্ছেন।
কমলগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ আরিফুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ঘটনার খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্হল পরিদর্শন করেছে । অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্হা গ্রহণ করা হবে।

Developed by :