Monday, 21 October, 2019 খ্রীষ্টাব্দ | ৬ কার্তিক ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |

অভিযান চলবে: ওবায়দুল কাদের

নিউজ ডেস্ক: জুয়া, মাদক, অনিয়মবিরোধী অভিযান চলবে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক, পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেছেন, জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে যোগ দিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শুক্রবার নিউইয়র্কের পথে রওনা হওয়ার আগে বিমানবন্দরে এমন নির্দেশনা দিয়ে গেছেন।সোমবার সচিবালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়ে সেতুমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে বিমানবন্দরে কথা হয়েছে, সবার সামনে তিনি বলেছেন এ ব্যাপারে। অপরাধী যত বড়ই হোক, যে মাদকের সঙ্গে জড়িত, টেন্ডারবাজি-চাঁদাবাজি যারা করবে, তারা সরকারি দলের হলেও ছাড় দেওয়া হবে না।

এক প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, এখানে কারো সঙ্গে কোনো আপস বা ছাড় দেওয়ার প্রশ্ন নেই। শুরু হয়েছে, দেখুন, ওয়েট অ্যান্ড সি, কোথায় গিয়ে দাঁড়ায়। মফস্বলে অনেকে অ্যারেস্ট হচ্ছে, জেলা পর্যায়ে অনেকে আতঙ্কের মধ্যে রয়েছে, যারা এসব অপকর্মের মধ্যে রয়েছে। এখানে মুখের কথা নয়। আমরা মিন করছি, শেখ হাসিনা মিন করছেন, তাই ব্যবস্থা নেওয়া শুরু হয়েছে। এ অভিযান চলবে যতদিন না দুনীতি, মাদকের চক্রকে ভেঙ্গে দিতে পারি।

ঢাকা দক্ষিণ যুবলীগের সভাপতি ইসমাইল হোসেন চৌধুরী সম্রাটসহ আওয়ামী লীগের অনেক নেতাদের নাম আসলেও তাদের কেন গ্রেপ্তার হচ্ছে না, এমন প্রশ্নে কাদের বলেন, অ্যাকশনটা শুরু হল এক সপ্তাহ, সবকিছু যাচাই-বাছাই করা হবে। যারা অ্যারেস্ট হয়েছে তারা কি কম অপরাধী? কাজেই এখানে কেউ পার পাবে না, কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। কিছু কিছু বিষয় আছে সরকার, আইন প্রয়োগকারী সংস্থা খোঁজ খবর নিচ্ছে।তিনি বলেন, অনেকে তো গা ঢাকাও দিয়েছে, কাজেই এদের খুঁজে বের করতে হবে, নজরদারীতে রাখা হয়েছে এবং অতীতে যারা হয়তো নিজেকে আড়াল করে রেখেছে তাদের খোঁজা হচ্ছে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, আমি এ কথা কখনই বলব না যে অমুকের ব্যাকগ্রাউন্ড অমুক দল। এখন তারা অপরাধী হিসেবে, সন্ত্রাসী হিসেবে ধরা পড়ছে আওয়ামী লীগ বা তার কোনো সহযোগী সংগঠনের পরিচয়ে। আমরা এটাকেই দেখব। এখন যখন আমাদের দলের পরিচয়ে অপরাধ করছে, আমার দলের লোক হিসেবে শাস্তি দিচ্ছি।গণমাধ্যমে এসব বিষয়ে অনুসন্ধানী প্রতিবেদন করাও দায়িত্বের মধ্যে আসে মন্তব্য করেন ওবায়দুল কাদের।

Developed by :