Sunday, 17 November, 2019 খ্রীষ্টাব্দ | ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |

ওরা ভয়ংকর ছিনতাইকারী

নিউজ ডেস্ক: মৌলভীবাজার মডেল থানা পুলিশের অভিযানে ধরা পড়লো ভয়ংকর ছয় ছিনতাইকারী। রবিবার (২০ অক্টোবর)  সকালে মৌলভীবাজারের বিভিন্ন এলাকা থেকে তাদেরকে আটক করে। পুলিশ জানায়, প্রথমে ফেইসবুকে মৌলভীবাজার শহরের ফটোগ্রাফার জুড়ীর ভবানীপুরের নিকুঞ্জ মোহনের ছেলে রিপন পাল (১৯) এর সাথে যোগাযোগ করেন এক ব্যক্তি। রিপন পেশাদায়িত্বের খাতিরে তাদের সরল মনে বিশ্বাস করেন। ঘটনার শুরু হয় গত ২২ সেপ্টেম্বর  শহরের পৌরসভার সম্মুখের পার্ক থেকে। সেখানে রিপনকে দিয়ে তাদের চক্রের সদস্যরা বিভিন্ন ফটোসেশন করেন। এভাবে ফটোগ্রাফার রিপনকে নিয়ে সারাদিন বিভিন্ন চা বাগানে ফটোসেশন করে ওই ছিনতাইকারী চক্র। তবে গ্যাংয়ের সদস্যদের কথাবার্তায় সন্ধ্যার পর দিকে রিপনের সরল মনে কিছুটা সন্দেহের দানা বাঁধে। একপর্যায়ে সে কৌশলে পালিয়ে আসে। এখানেই শেষ নয়। ছিনাতাইকারী গ্যাং অনেক চতুর হওয়ায় তাদের পাতানো আরেকটি ফাঁদে পা দেয় ওই ফটোগ্রাফার। শহরের চাঁদনীঘাট সিএনজি স্ট্যান্ডে রিপন বাড়ি ফেরার জন্য সিএনজি ভাড়া করে। ওই সময় তার সাথে ৩জন যাত্রী সিএনজিতে উঠে। এটি ছিল ওই চক্রের ২য় ফাঁদ। এ২য় ফাদেঁ ফেলে রিপনের সঙ্গে থাকা সব কিছুই লুট করে ওই চক্রটি।

সিএনজি কিছুদূর যাবার পর গাড়ির কাগজ নেই, সামনে পুলিশ চেকপোস্ট এমন বাহানা দেখিয়ে চালক ফাঁড়ি পথের দিকে যায়। বিভিন্ন পথে ঘুরাফেরা করতে থাকে। একপর্যায়ে চালকের চাল-চলনে আবারো ফটোগ্রাফারের মনে সন্দেহ হয়। আবারও সে পালানোর চেষ্টা করে। কিন্তু ছিনতাইকারী গ্যাং ততক্ষণে পালানোর সব পথই বন্ধ করে দিয়েছে। কমলগঞ্জের পতনউষার আহমদ নগর নামক এলাকায় রাত ১টার নির্জন স্থানে ফটোগ্রাফারের হাত, পা, মুখ, বেঁধে মারধর করে। রিপনের ব্যাগে থাকা লক্ষাধিক টাকার মূল্যের ক্যান্ন সিক্স হান্ডেড ডি মডেলের ক্যামেরা, ১৬ হাজার টাকার অপ্পো এ-থ্রিসেভেন মডেলের মোবাইল ফোন, মানিব্যাগসহ অর্ধলক্ষাধিক টাকা মূল্যমানের জিনিস ছিনতাই করে ওই গ্যাং। ফটোগ্রাফারকে সেখানেই বাঁধা অবস্থায় ফেলে লুট করে ফের সিএনজিতে করে পালিয়ে যায় ওই চক্র। পরে নিজের চেষ্টায় ওই অবস্থা থেকে ফিরে স্থানীয় দোকানে আশ্রয় নেয় ওই ফটোগ্রাফার।কিন্তু ছিনতাইকারী চক্রের এক সদস্য লুট করা ক্যামেরা বিক্রি করে দেন স্থানীয় এক ক্রেতার কাছে। পরে গত ১৭ নভেম্বর ফেইসবুকের একটি গ্রুপে ক্যামারা বিক্রির জন্য পোস্ট করে ওই ক্রেতা। সেখানে নিজের হারানো ক্যামেরা দেখে চিনতে পারেন ওই ফটোগ্রাফার।

পরে ফটোগ্রাফার রিপন পাল সার্বিক ঘটনার বিবরণ দিয়ে মৌলভীবাজার মডেল থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। এঘটনায় ওই চক্রের ৬ সদস্যকে আটক করে পুলিশ। আটককৃতরা হলেন- শহরের গোবিন্দশ্রী এলাকার তৈয়ব উল্যাহর ছেলে মো. দুলাল (২৬), সদর উপজেলার জগন্নাথপুর এলাকার বশির মিয়ার ছেলে মো. জাবেদ (২৩), কমলগঞ্জের বাহুলপুর এলাকার শওকত আলী (২০), রাজনগরের ইলাশপুর এলাকার আল আমিন মিয়া (২২), সদরের জগন্নথপুর এলাকার বশির মিয়ার ছেলে জামাল হোসেন (৩০) ও সদরের বিন্দাবনপুর এলাকার গোপল দাসের ছেলে দিলিপ দাশ (২৬)।

 মৌলভীবাজার মডেল থানার অফিসার্স ইনচার্জ (ওসি) আলমগির হোসেন বলেন, “এই গ্যাং এর মধ্যে একই পরিবারের দুই ভাই আছেন। তারা এর আগেও বিভিন্ন সময় এই ধরণের ঘটনার সাথে জড়িত। পুলিশ অভিযান চালিয়ে ক্যামেরা, মোবাইল, যাবাতীয় মালামাল, সিএনজি, টমটমসহ ৬ জনকে আটক করেছে।

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by :